চুলের যত্নে মেহেদী

চুলের যত্নে মেহেদী

হাত রাঙাতে যেমন মেহেদী কার্যকরী ঠিক তেমনি চুলের যত্নেও মেহেদী আদর্শ ভূমিকা পালন করে থাকে। নতুন চুল গজাতে, চুলের বৃদ্ধি ত্বরান্বিত করতে, চুল রাঙাতে, খুশকি দূর করতে এবং চমৎকার স্বাস্থ্যোজ্জ্বল চুল পেতে মেহেদী অত্যন্ত কার্যকরী। গাছের পাতা মেহেদী ছাড়াও এখন ঝামেলা এড়াতে গুঁড়ো মেহেদী কিনে ব্যবহার করতে পারেন।

চলুন জেনে নেওয়া যাক চুলের যত্নে কিভাবে মেহেদী ব্যবহার করতে পারবেনঃ

নতুন চুল গজাতেঃ

১. নতুন চুল গজাতেঃ চুলের ঘনত্ব বাড়াতে চাইলে শতভাগ আস্থা রাখতে পারেন মেহেদীর ওপর। ঘনকালো চুল পেতেও মেহেদী সাহায্য করে থাকে। ১ কাপ বাটা মেহেদীর সাথে ২ চা চামচ নারিকেল তেল ও সমপরিমাণ টকদই মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। এই হেয়ার প্যাকটি ১ ঘন্টা রেখে চুল ধুয়ে ফেলুন। সুন্দর ঘন কালো চুল পেতে মাসে অন্তত দুইদিন ব্যবহার করুন।

২. রুক্ষতা দূর করতেঃ ১ কাপ পরিমাণ বাটা মেহেদীর সাথে ১ টি ভিটামিন ই ক্যাপসুল ও ২ চা চামচ অলিভ অয়েল মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। এই প্যাকটি চুলে লাগিয়ে ১ ঘন্টা রেখে শ্যাম্পু করে ফেলুন। চুলের রুক্ষতা কমাতে ও চুলের আগা ফাঁটা রোধ করতে এই প্যাকটি বেশ কার্যকরী ভূমিকা পালন করে।

৩. চুল রাঙাতেঃ অনেকেরই হরমোনাল সমস্যার কারণে অল্প বয়সে চুল পেকে যায়। নিয়মিত মেহেদী ব্যবহার করলে এই সাদাটে ভাব কাটিয়ে ওঠা সম্ভব। প্রথমে এক কাপ ফুটন্ত পানিতে ২ চা আমলকী গুঁড়ো, ১ চা চামচ রঙ চা ও দুটো লবঙ্গ এবং পরিমাণ মতো মেহেদী বাটা দিয়ে ঘন প্যাক তৈরি করুন। এই প্যাকটি চুলে লাগিয়ে ঘন্টা দুয়েক পরে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। পাকা চুলের সমস্যা মিলিয়ে যাবে।

চুলের  মেহেদী

৪. খুশকি সমস্যা কমাতেঃ সবারই কমবেশি খুশকির মতো সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। এ জাতীয় সমস্যা মোকাবিলায় মেহেদীর সাহায্যে চটজলদি তৈরি করতে পারেন হেয়ার প্যাক। আগের রাতে মেথি ভিজিয়ে রেখে পরদিন বেটে নিন। সরিষার তেল গরম করে তাতে কয়েকটি মেহেদী পাতা ছেড়ে দিন৷ তেল ঠান্ডা হয়ে এলে বাটা মেথি মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। এই হেয়ার প্যাকটি মাথার ত্বকে লাগিয়ে ঘন্টা দুয়েক পরে শ্যাম্পু করে ফেলুন। খুশকি সমস্যা কমাতে এই প্যাকটি বেশ কার্যকরী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *